অবশেষে উইকেটের দেখা পেল বাংলাদেশ। মুস্তাফিজের বাউন্সারে আউট হতে হতে বেঁচে গিয়েছিলেন ডিন এলগার। আউট হলেন শুভাশিসের বাউন্সারে। উইকেটে থাকল মুস্তাফিজের ছোঁয়াও।

নতুন স্পেলে শুভাশিসের সেটি প্রথম ওভার। বাউন্সারে এলগারের পুল শটে টাইমিংয়ে গড়বড়। ফাইন লেগ সীমান্ত থেকে ভেতরে ছুটে এসে দারুণ ক্যাচ নিলেন মুস্তাফিজুর রহমান।

১১৩ রানে আউট হলেন এলগার। ২৪৩ রানে ভাঙল উদ্বোধনী জুটি। বাংলাদেশের বিপক্ষে এটি তৃতীয় সর্বোচ্চ উদ্বোধনী জটি। মারক্রামের সঙ্গে জুটি বাঁধলেন হাশিম আমলা।

এলগার-মার্করামের শতকে দিশেহারা বাংলাদেশ

প্রথম টেস্টেরেই পুনরাবৃত্তি। তবে প্রথম টেস্টে মার্করাম ৩ রানের জন্য সেঞ্চুরি মিস করলেও দ্বিতীয় টেস্টে সেই ভুল আর করলেন না।  ১৪২ বলে ১৬ টা চারের সাহায্যে ১০১ রান করেন তিনি। তবে তার আগে সেঞ্চুরি করেন এলগার।

তাইজুলের করা ৪১তম ওভারের তৃতীয় বল স্কয়ার লেগ বাইরে পাঠান ডিন এলগার। ৯৪ থেকে এলগার পৌঁছে যান ৯৮ রানে। পরের বলটিতে কভার ড্রাইভ করে আবারও মাঠের বাইরে পাঠান বাঁহাতি ওপেনার। এ বাউন্ডারিতে ক্যারিয়ারের দশম সেঞ্চুরি সেঞ্চুরি নেন এলগার। বাংলাদেশের বিপক্ষে টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তার। ১১৬ বলে ১৭ বাউন্ডারিতে তিন অঙ্ক ছুঁয়েছেন এলগার।

এই দুই ওপেনারের ব্যাটিং তাণ্ডবে দিশেহারা বাংলাদেশি বোলাররা। কোন উইকেটের দেখা নেই। খেলা হয়ে গেছে ৪৫ ওভার।

৪৫ ওভার শেষে দক্ষিণ আফ্রিকার রান বিনা উইকেটে ২১১।  এলগার ১০৫ ও মার্করাম ১০১ রানে অপরাজিত আছেন।

এসএমএইচ// শুক্রবার, অক্টোবর ২০১৭, ২১ আশ্বিন ১৪২৪