Home / টপ নিউজ / চাকরির স্বার্থে চাকরি নয়, জনগণের জন্য কাজ করুন

চাকরির স্বার্থে চাকরি নয়, জনগণের জন্য কাজ করুন

চট্টগ্রাম, ২৩ জুলাই (অনলাইনবার্তা) :সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের চাকরির স্বার্থে চাকরি নয়, জনগণের জন্য কাজ করার নির্দেশ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
তিনি বলেছেন, সরকারি কর্মীদের অনেক উন্নতি করে দেওয়া হয়েছে। কাজে মনযোগ দিলে আগামীতে আরও উন্নতি হবে।
শনিবার (২৩ জুলাই) বেলা পৌনে ১২টার দিকে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জনপ্রশাসন পদক-২০১৬ প্রদান অনুষ্ঠানে বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। জাতীয় ও মাঠ পর্যায়ে যথাক্রমে ১৩ ও ১৭ জনকে পুরস্কার দেওয়া হলো।
সেবার মনভাব নিয়ে দায়িত্ব পালন করতে হবে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, আমরা সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পদোন্নতি দিয়েছি। ১২৩ শতাংশ বেতন বৃদ্ধি করেছি। আমরা যে বাজেট বা কর্মসূচি হাতে নেই তা যেন দ্রুত বাস্তবায়ন হয়, এটিই চাই। এজন্য কর্মীদের আরও এগিয়ে যেতে হবে। শুধু চাকরির স্বার্থে চাকরি নয়, জনগণের জন্য কাজ করা পবিত্র দায়িত্ব, সে হিসেবে কর্মসম্পাদন করতে হবে।তিনি বলেন, আমাদের বিভিন্ন পদবি ছিল না; কর্মচারীদের পদবি পরিবর্তন করা হয়েছে। প্রত্যেকটি পদের নাম পরিবর্তন করে সম্মানজনক পদবি আমরা দিয়েছি। আমরা প্রায় সর্বক্ষেত্রে এটি করেছি; সরকারি এবং বেসরকারি উভয় ক্ষেত্রেই।
সরকারি কর্মীদের প্রশিক্ষণের ওপর জোর দেওয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা নানামাত্রিক প্রশিক্ষণে জোর দিয়েছি। বিশ্বপ্রতিনিয়ত এগিয়ে যাচ্ছে। নতুন নতুন প্রযুক্তি আসছে এবং তার সঙ্গে তাল মিলিয়েই আমাদের চলতে হবে। আজকের বিশ্ব প্রতিযোগিতামূলক। প্রতিযোগিতামূলক এই বিশ্বে টিকে থাকতে হলে আমাদেরও তাল মিলিয়ে চলতে হবে। আর এতে প্রশিক্ষণের ওপর আমাদের গুরুত্ব দিতে হবে।
যুগে-যুগে বাঙালিদের সবচেয়ে বেশি অবহেলা করা হয়েছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের মুক্তি দিয়েছেন। তিনি আমাদের সংবিধান দিয়েছেন মাত্র নয় মাসের মধ্যে। সেই সংবিধানে আমাদের আর্থসামাজিক উন্নতি থেকে শুরু করে প্রশাসনিক সবকিছু উল্লেখ করা ছিল।
তিনি বলেন, যেখানেই আমরা কাজ করতে যাচ্ছি সেখানেই দেখছি জাতির পিতা ভিত্তি তুলে দিয়ে গেছেন। মাত্র সাড়ে তিনবছরের মধ্যে তিনি এতো কাজ করেছেন, যা বাঙালির বিশাল অর্জন। তৃণমূল পর্যায়ে তিনি জনসেবা করার পদক্ষেপ নিয়েছিলেন। তবে হত্যা ষড়যন্ত্রের রাজনীতি এবং অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল যার ফলে হঠাৎ আমরা পিছিয়ে যেতে থাকি। ’৯৬ সালে যখন এসেছিলাম (আওয়ামী লীগ প্রথমবার ক্ষমতায়) তখন কিছুই ছিল না। তার থেকে দেশকে এগিয়ে নিয়ে গেছি আমরা।
এদিকে দেশের চলমান জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ দমন প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, যেকোনো মূল্যে জঙ্গি দমন করা হবে। এক্ষেত্রে কোনো ছাড় নেই।

x

Check Also

আরো আট নারী ও শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ

সাভারের আশুলিয়ায় বন্ধুদের সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে স্থানীয় একটি কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা দুই ...