Home / খেলা / ছুটে বেড়াতে কতটা প্রস্তুত মুস্তাফিজ

ছুটে বেড়াতে কতটা প্রস্তুত মুস্তাফিজ

চট্টগ্রাম, ৪ জুন (অনলাইনবার্তা): আন্তর্জাতিক অভিষেকের পর থেকেই একটানা ক্রিকেট খেলে চলেছেনকাটার মাস্টারমুস্তাফিজুর রহমান ২০১৫ সালের ২৪ এপ্রিল পাকিস্তানের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক (টিটোয়েন্টি) অভিষেকের পর থেকে গেল ১৩ মাসে বাংলাদেশের জার্সি গায়ে খেলেছেন ৯টি ওয়ানডে, দুটি টেস্ট ১৩টি টিটোয়েন্টি পর্যন্ত ঠিকঠাকই ছিল সব ২০ বছরের তরুণ পেসারের উপর দিয়ে বেশ বড় একটা ধকল যায় ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে অংশ নিয়ে দেড় মাসের ব্যবধানে বিরামহীনভাবে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে ফাইনালসহ খেলেছেন ১৬টি ম্যাচ

আইপিএলে হায়দ্রাবাদকে শিরোপা তুলে দিয়ে আর সেরা উদীয়মান ক্রিকেটারের পালক যোগ করে দেশে ফেরেন ক্লান্ত মুস্তাফিজুর রহমান। যে ছেলেকে একা কখনো দেশের বাইরে থাকতে হয়নি, তাকেই কিনা ৫৫ দিন কাটাতে হলো ভারতের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে!

বিসিবির চিকিৎসকফিজিওরা বলছেন শরীরের চেয়ে মনের উপর দিয়েই ধকলটা বেশি গেছে কাটার মাস্টারের

প্রশ্ন হলো, হায়দ্রাবাদের এতো ক্রিকেটারের মাঝেও কি পরিবারকাছের লোকজনের কথা ভেবে একাকী, বিষন্নবোধ করেছেন সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার তেঁতুলিয়া গ্রামের ছেলে মুস্তাফিজ? স্বল্পভাষী মুস্তাফিজের কাছ থেকে এটি জানা না গেলেও হোমসিকনেসের আঁচ পাওয়া যায় তার কথাতেই, ‘প্রথমে বাংলাদেশে ফেরার জন্য ব্যাকুল ছিলাম। এখন মাবাবার কাছে যেতে চাই।

ক্রিকেটের বাইরের সময়গুলো কি ভারতে উপভোগ করেননি মুস্তাফিজ! নইলে দুই মাসে তিন কেজি ওজন কমে যাওয়া তোসহজ ব্যাপার নয়।হোমসিকদ্রুত কাটিয়ে না উঠতে পারলে কিভাবে হবে মুস্তাফিজের? বিভিন্ন দেশের লিগ গুলো এমন ক্রিকেটারকে পেতে চাইবে এটাই স্বাভাবিক। তবে, মুস্তাফিজ বিভিন্ন দেশে ছুটে বেড়াতে কতটা প্রস্তুত?

আইপিএল শেষে তার যাওয়ার কথা কাউন্টি দল সাসেক্সের হয়ে ন্যাটওয়েস্ট টিটোয়েন্টি ব্লাস্ট এবং রয়্যাল লন্ডন ওযানডে কাপে খেলার জন্য ইংল্যান্ডে যাওয়ার কথা মুস্তাফিজের। সূত্রমতে, ঘনিষ্ঠজনদের মুস্তাফিজ নাকি বলেছেন, শরীর কুলিয়ে উঠলেও আপাতত ইংল্যান্ডে যেতে মন টানছে না তার

মুস্তাফিজকে নিয়ে চলছে সাসেক্স মোহামেডানের টানাটানি। প্রিমিয়ার লিগের প্লেয়ার্স ড্রাফটেপ্লাস ক্যাটাগরিতে মুস্তাফিজুর রহমানকে দলে নিয়েছে মোহামেডান। জুনের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে শুরু হতে যাওয়া সুপার লিগ থেকে মুস্তাফিজকে পাওয়া যাবেএমন আশায় মোহামেডান কর্তৃপক্ষ। এদিকে সাসেক্সের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হওয়ায় দলটি আগামী ১০ জুন ঘরের মাঠে কেন্টের বিপক্ষে ম্যাচেই মুস্তাফিজকে পাবে এমন আশা করছে। কয়েকদিন বিশ্রামের পর ফিট মুস্তাফিজ কোথায় খেলবেন? কাউন্টি নাকি ঘরোয়া লিগে?

ক্রিকেটপ্রেমীরা তো বটেই; ক্রিকেট সংশ্লিষ্টরাও মুস্তাফিজের কাউন্টিতে খেলতে যাওয়ার পক্ষে। বাংলাদেশ জাতীয় দলের হেড কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে মুস্তাফিজের কাউন্টিতে খেলার ব্যাপারে জানান, মুস্তাফিজ যদি দ্রুত উন্নতি করে এবং পারফর্ম করে, তাহলে সবচেয়ে বেশি উপকার বাংলাদেশের ক্রিকেটেরই। কাজেই ওর শরীরের যদি ক্ষতি না হয়, আমার মতে ইংল্যান্ডে গিয়ে খেলাই ওর জন্য ভালো হবে। মুস্তাফিজ এখন খেলতে গেলে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির টুর্নামেন্টের জন্যও ভালো প্রস্তুতি হবে। পারফরমেন্স ভালো করতে হলে ওই কন্ডিশনে খেলতে হবে। ওখানে না গেলে সেটা জানা যাবে না। বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের কাছে এমন সুযোগ বার বার আসেনা

x

Check Also

আজ৩১ উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বৃহস্পতিবার ২৭ আগস্ট ১৮ জেলার ৩১টি উপজেলার শতভাগ ...