Home / রাজনীতি / ত্রাণ নিয়ে ছিনিমিনি খেললে ব্যবস্থা: মায়া

ত্রাণ নিয়ে ছিনিমিনি খেললে ব্যবস্থা: মায়া

নিজস্ব প্রতিবেদক :

বন্যার্ত মানুষের ত্রাণ নিয়ে ছিনিমিনি খেললে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া। তিনি বলেন, ত্রাণের কোনো অভাব নেই। পর্যাপ্ত ত্রাণ মজুদ আছে। ত্রাণ বিতরণে যদি কারো গাফিলতি পাওয়া যায় তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সোমবার মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার তেওতা ইউনিয়নের জাফরগঞ্জে বন্যাকবলিত মানুষের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ শেষে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বন্যার সার্বিক পরিস্থিতি সবসময় পর্যবেক্ষণ করছেন। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থরা যেন ত্রাণসহ সার্বিক সহযোগিতা পান প্রধানমন্ত্রী সে ব্যাপারে নির্দেশ নিয়েছেন। তিনি বলেন, দুর্যোগকালীন সরকারি কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিরা বন্যাদুর্গতদের পাশে না দাঁড়ালে তাদের জবাবদিহি করতে হবে।

মায়া বলেন, বন্যার পানি নেমে গেলেও সরকার বন্যা দুর্গতদের পুনর্বাসন কার্যক্রম অব্যাহত রাখবে। এ সময় সকল ভেদাভেদ ভুলে বন্যার্তদের পাশে দাঁড়াতে সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

মন্ত্রীর সঙ্গে আরো উপস্থিত ছিলেন, মানিকগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য নাঈমুর রহমান দুর্জয়, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব শাহ কামাল, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রিয়াজ আহমেদ, মানিকগঞ্জের জেলা প্রশাসক রাশিদা ফেরদৌসসহ স্থানীয় প্রতিনিধিরা।

এদিকে সোমবার মন্ত্রী মানিকগঞ্জের বন্যা দুর্গতদের জন্য ২০ লাখ টাকা ও ২০০ টন চাল বরাদ্দ দেন। এ নিয়ে এই জেলায় মোট ৩২ লাখ টাকা ও ৩৭৫ টন চাল বরাদ্দ করা হলো। এরআগে ১২ লাখ টাকা ও ১৭৫ টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছিল।

বন্যায় মানিকগঞ্জের সাতটি উপরজেলার মধ্যে শিবালয়, হরিরামপুর, দৌলতপুর ও ঘিওরসহ ছয়টিই বন্যা কবলিত। এসব উপজেলার ২৩ হাজার ৭০০ পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এরমধ্যে ৫৫৫ পরিবার নদীভাঙনের শিকার হয়েছেন। এছাড়া ১৯৯টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও ৩৫টি ইউনিয়ন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

 আরডি/ এসএমএইচ // ১ আগস্ট ২০১৬

x

Check Also

মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানের অনেক আগেই মোদিকে আমন্ত্রণ জানানো হয়: কাদের

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে সহিংসতার কারণে সমালোচনার মুখে থাকায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ...