Home / টপ নিউজ / নিজামীর ফাঁসি, চট্টগ্রামে গণজাগরণ মঞ্চের আনন্দ মিছিল

নিজামীর ফাঁসি, চট্টগ্রামে গণজাগরণ মঞ্চের আনন্দ মিছিল

চট্টগ্রাম, ১১ মে (অনলাইনবার্তা): একাত্তরের আলবদর কমাণ্ডার ও জামায়াতের আমির মতিউর রহমান নিজামীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়ায় চট্টগ্রামে আনন্দ মিছিল ও মিষ্টি বিতরণ করেছে গণজাগরণ মঞ্চ।

পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী বুধবার (১১ মে) সকাল থেকে নগরীর চেরাগি চত্বরে জমায়েত হন গণজাগরণ মঞ্চের নেতাকর্মীরা।

সকাল সাড়ে ১১টার দিকে চেরাগি থেকে গণজাগরণ মঞ্চের সমন্বয়কারী শরীফ চৌহানের নেতৃত্বে মিছিল বের হয়।  মিছিলটি নগরীর আন্দরকিল্লা মোড় ঘুরে আবারও চেরাগিতে এসে শেষ হয়।  এরপর চেরাগির মোড়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

মিছিল-সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা কাজী নূরুল আবছার, উদীচী চট্টগ্রাম জেলা সংসদের সহ-সভাপতি সুনীল ধর, প্রমা আবৃত্তি সংগঠনের সভাপতি রাশেদ হাসান, প্রজন্ম’৭১ সংগঠনের সভাপতি সলিল চৌধুরী, খেলাঘর চট্টগ্রাম মহানগরী কমিটির সহ-সভাপতি আশীষ সেন, জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি শিমুল বৈঞ্চব, জেলা ছাত্রফ্রন্টের সভাপতি আল কাদেরি জয়, সংস্কৃতিকর্মী হাবিব বিপ্লব, সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী তরুণ উদ্যোগের যুগ্ম আহবায়ক প্রীতম দাশ ও রুবেল দাশ প্রিন্স।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, দীর্ঘ ৪৫ বছর ধরে জাতি এই মুহূর্তটি দেখার প্রতীক্ষায় ছিল।  দণ্ড কার্যকরের মধ্য দিয়ে ভয়ঙ্কর খুনি মতিউর রহমান নিজামী বিদায় নিল।  দেশ পাপমুক্ত হল।  জাতি দীর্ঘদিন ধরে দুঃখের ভার বহন করে আসছিল।

‘আলবদর নেতা মতিউর রহমান নিজামী পাকিস্তানীদের পরিকল্পনায় দেশ স্বাধীনের আগে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করেছিল।  বুদ্ধিজীবীদের পরিবার তাদের অনেকের মরদেহ পর্যন্ত খুঁজে পায়নি।  নিজামীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের মধ্য দিয়ে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের পরিবারগুলোর যন্ত্রণার ভার হালকা হয়েছে। ’

একাত্তরের আল বদর নেতা নিজামীকে বাংলাদেশের মন্ত্রী করায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বক্তারা বলেন, খালেদা জিয়ার আমলে ভয়ঙ্কর এই খুনিকে শাসন ক্ষমতায় বসানো হয়েছিল।  একজন মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী হয়ে খালেদা জিয়া সেদিন জাতির সঙ্গে নির্মম আচরণ করেছিলেন।  এই যুদ্ধাপরাধীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের মধ্য দিয়ে দেশ দায়মুক্তির পথে আরও এক ধাপ এগোলো।

নিজামীর ফাঁসির মধ্য দিয়ে শহীদ জননী জাহানারা ইমামের আত্মা শান্তি পাবে বলে মন্তব্য করেন বক্তারা।

নিজামীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করায় সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়ে সব যুদ্ধাপরাধীর সম্পদ বাজেয়াপ্ত এবং অবিলম্বে জামায়াত ইসলামী ও ছাত্রশিবিরকে নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়েছেন গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠকরা।

x

Check Also

আরো আট নারী ও শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ

সাভারের আশুলিয়ায় বন্ধুদের সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে স্থানীয় একটি কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা দুই ...