অটিজম আক্রান্তদের কল্যাণে নিরবচ্ছিন্ন ও উদ্ভাবনী কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ ‘ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন অ্যাওয়ার্ড’-এ ভূষিত হওয়ায় সায়মা ওয়াজেদ পুতুলকে অভিনন্দন জানিয়েছে মন্ত্রিসভা।

সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকের শুরুতেই সায়মা ওয়াজেদ পুতুলকে অভিনন্দন জানানো হয়।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদসচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

সিমা কলাইনু নামে নিউ ইয়র্কভিত্তিক একটি শিশু অটিজম কেন্দ্র ও স্কুল অটিজম আক্রান্ত ব্যক্তিদের কল্যাণে নিরবচ্ছিন্ন ও উদ্ভাবনীমূলক কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ সায়মা ওয়াজেদকে এই পুরস্কার দেওয়া হয়।

সিমা কলাইনু ১৯৯৮ সালে প্রতিষ্ঠিত নিউ ইয়র্কের প্রথম শিশু অটিজম কেন্দ্র ও স্কুল। প্রতিষ্ঠানটি নিউইয়র্কের পাঁচটি পৌর এলাকার অটিজম স্পেকট্রাম ডিসঅর্ডারে আক্রান্ত হাজারেরও বেশি শিশুকে হোম সার্ভিস দিয়ে আসছে। সায়মা ওয়াজেদের পক্ষে পদকটি গ্রহণ করেন জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন। গত ২৫ জুলাই প্রিন্সটন ক্লাব অব নিউইয়র্কে আয়োজিত সিমা কলাইনু এবং এর আন্তর্জাতিক সহযোগী প্রতিষ্ঠান ‘আই কেয়ার ফর অটিজম’ এর বার্ষিক প্রাতঃরাশ অনুষ্ঠানে এ পদক দেওয়া হয়।

এর আগে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সায়মা ওয়াজেদ পুতুলকে অটিজম স্পেকট্রাম ডিজঅর্ডারের ক্ষেত্রে ‘গ্লোবাল রিনাউন্ড চ্যাম্পিয়ন’ হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে। এ ছাড়া, গতমাসে সংস্থাটির দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার আঞ্চলিক কার্যালয় এ অঞ্চলের ১১টি দেশের জন্য সায়মাকে অটিজম বিষয়ক ‘শুভেচ্ছা দূত’ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। এ ছাড়া চলতি বছরের এপ্রিলে ভুটানে অটিজম বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে ‘থিম্পু ডিক্লারেশন’ গ্রহণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন তিনি।

এসএমএইচ //   সোমবার, ৭ আগস্ট ২০১৭। ২৩ শ্রাবন ১৪২৪