Home / খেলা / বছরের শেষে আসছে অস্ট্রেলিয়া!
168503063CS003_Cricket_Aust

বছরের শেষে আসছে অস্ট্রেলিয়া!

ক্রীড়া ডেস্ক :

গেল বছর বাংলাদেশ সফরে আসার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়ার। কিন্তু নিরাপত্তাজনিত কারণে ঐ সফরটি স্থগিত করে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)। তবে নতুন বছরের কোনো এক সময় টাইগারদের বিপক্ষে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজ খেলতে আসার কথা জানিয়েছিল দেশটির ক্রিকেট বোর্ড। এবার ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাহী জেমস সাদারল্যান্ড স্পষ্ট করেই জানিয়েছেন, চলতি বছরের আগস্ট-সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশ সফর করতে আগ্রহী অস্ট্রেলিয়া।

যখনই অস্ট্রেলিয়ার বাংলাদেশ সফরের প্রসঙ্গটি এসেছে, তখন এসেছে নিরাপত্তার প্রশ্ন। কিন্তু গেল বছরের শেষ দিকে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল কোনো সমস্যা ছাড়ায় বাংলাদেশ সফর শেষ করে। তাদেরকে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দিয়েছিল বিসিবি। এর পর থেকেই নড়ে চড়ে বসেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। এরমধ্যে বাংলাদেশের নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণও করেছেন তারা। তবে এখনই এ সফর নিয়ে সুনির্দিষ্ট করে কিছু বলছেন না সাদারল্যান্ড। এখনও তারা এদেশের আইন-শৃঙ্খলা ব্যবস্থায় তীক্ষ্ণ দৃষ্টি রাখছেন।

বুধবার এবিসি রেডিওকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বাংলাদেশ সফর নিয়ে জেমস সাদারল্যান্ড বলেন, ‘চলতি বছর এ সফর হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। আমরা গত বছর যেটা দেখলাম, ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল বাংলাদেশ সফরে গিয়েছিল। সেখানে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের জন্য কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছিল। আমরা সেখানে আমাদের নিরাপত্তা প্রধান শন ক্যারলকে পাঠিয়েছিলাম। সাত থেকে দশ দিনের মতো বাংলাদেশে থেকে সে নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেছে এবং নিরাপত্তা ব্যবস্থা দেখে স্বস্তি প্রকাশ করেছে।’

তিনি আরো বলেছেন, ‘এ মুহূর্তে আমি বলতে পারছি আমরা সেখানে দুটি টেস্ট খেলতে যাব। কয়েকদিনের মধ্যেই এ ব্যাপারে কিছু একটা হতে পারে। আমরা নিবিড়ভাবে বাংলাদেশের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করব।’- যোগ করেন সাদারল্যান্ড।

২০০৬ সালের পর বাংলাদেশের বিপক্ষে আর টেস্ট খেলেনি অস্ট্রেলিয়া। সেবার দেশটির পেসার জেসন গিলেস্পি টাইগারদের বিপক্ষে ডাবল সেঞ্চুরি করেছিল। দীর্ঘ সময় পর গত বছর দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজ খেলতে বাংলাদেশের আসার কথা ছিল অজিদের। কিন্তু নিরাপত্তা ঝুঁকির কারণে শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করে এই সফর স্থগিত করে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। তবে তারা আশার কথা শুনিয়েছিল বিসিবিকে। যে ২০১৭ সালের কোনো এক সময়ে আমরা বাংলাদেশ সফর করব। কেননা এই সফরটি আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।

এ নিয়ে জেমস সাদারল্যান্ড বলেন, ‘আমি মনে করি সফরটি আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। তবে আমাদের জন্য নিরাপত্তা ইস্যুটি সবচেয়ে বড়। ক্রিকেটার, স্টাফ ও অফিশিয়ালদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের পরই আমরা সেখানে যাব। আমরা নিরাপত্তা নিয়ে কোনো আপস করব না।’

উল্লেখ্য, নিরাপত্তা জনিত কারণে ২০১৬ সালে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপেও বাংলাদেশে আসেনি অস্ট্রেলিয়া।

আরডি/ এসএমএইচ/ ৪ জানুয়ারি ২০১৭

x

Check Also

আরো আট নারী ও শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ

সাভারের আশুলিয়ায় বন্ধুদের সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে স্থানীয় একটি কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা দুই ...