Home / আন্তর্জাতিক / বাংলাদেশে আইএস বা আলকায়েদা নেই, নিশাকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বাংলাদেশে আইএস বা আলকায়েদা নেই, নিশাকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

চট্টগ্রাম, ৫ মে (অনলাইনবার্তা): বাংলাদেশে আইএস বা আলকায়েদার কোনো সাংগঠনিক কাঠামো নেই বলে সফররত মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের অ্যাসিসট্যান্ট সেক্রেটারি নিশা দেশাইকে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

বৃহস্পতিবার (০৫ মে) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা তাদেরকে জানিয়েছি, বাংলাদেশে আইএস বা আলকায়েদার কোনো সাংগঠনিক কাঠামো নেই।

তিনি বলেন, শুরু থেকেই এখানে যেসব জঙ্গি হামলা হয়েছে সেগুলোর সঙ্গে দেশি জঙ্গিরা জড়িত। এর শুরু শিবির থেকে। পরে হুজি, জেএমবি, আনসারুল্লাহ, আনসার আল ইসলামসহ বিভিন্ন ব্যানারে জঙ্গিরা কার্যক্রম চালাচ্ছে। মানবতাবিরোধী অপরাধীদের রক্ষা করতে ও উন্নয়নে বাধা দিতেই তারা এসব করছে। তবে পরিস্থিতি আমাদের নিয়ন্ত্রণে আছে। বেশিরভাগ হামলাই চিহ্নিত করা হয়েছে। সবগুলো নিয়ন্ত্রণে এনেছি।

তবে জুলহাজ মান্নানসহ বিভিন্ন হত্যার তদন্তে মার্কিন সহায়তা চেয়েছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, যু্ক্তরাষ্ট্র জুলহাজ হত্যার তদন্তসহ সন্ত্রাস দমনে সাহায্য করতে চেয়েছে। আমরা বলেছি, প্রয়োজন হলে সাহায্য চাওয়া হবে। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের অংশীদারিত্বের বিষয়ে নিশা দেশাইয়ের আলোচনা হয়েছে। আমরা কোন ধরনের সাহায্য চাই, তা তাদের বলেছি।

বাংলাদেশের দু’একজন ব্লগার ধর্মানুভূতিতে আঘাত দিয়ে লেখেন বলে  যুক্তরাষ্ট্রকে জানানো হয়েছে বলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তারা বাক স্বাধীনতা নিয়ে প্রশ্ন তুললে আমরা বলেছি, এখানে অনেক ব্লগার লেখালেখি করেন। তবে দু’একজন ব্লগার ধর্মের বিরুদ্ধে লেখেন। আমাদের বিশ্বাসের বিরুদ্ধে লেখেন। যেগুলো আমাদের সংবিধানে স্পষ্ট করে নিষেধ রেয়েছে। সব ধর্মের মানুষ এখানে বসবাস করবেন। কোনো ধর্মের মানুষ অন্যের ধর্মের ওপর আঘাত করতে পারবেন না। এটা ফৌজদারি অপরাধ।

সমকামিতা বা ‘আন ন্যাচারাল সেক্স’ এদেশে নিষিদ্ধ সেটাও নিশাকে জানানো হয়েছে। নিশা বিষয়টি স্বীকার করেই সন্ত্রাস নিয়ন্ত্রণের ওপর জোর দিয়েছেন বলেও জানান আসাদুজ্জামান খাঁন।

আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, এই বিষয়(সমকামিতা) নিয়ে যে আন্দোলন করার চেষ্টা করা হচ্ছে, সেটা আমাদের ধর্মে, সমাজে নিষিদ্ধ। পৃথিবীর বেশিরভাগ দেশেই এটাকে নিষিদ্ধ। আমাদের দেশের সমস্ত ধর্মের প্রধানরা এটা নিষেধ করেছেন। এটাও একটা অপরাধ। কাজেই এদেশে এটার প্রচার-প্রচারণা করা অপরাধ। এ থেকে সংযত হওয়া উচিত।

সরকারের এমন অবস্থানের কারণে এসব ব্যক্তিদের হত্যায় উৎসাহী হবে কি-না- নিশা দেশাইয়ের এমন প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা সবাইকে সুরক্ষা দিচ্ছি। সবাইকে রক্ষার দায়িত্ব সরকারের। এ ধরনের হত্যা যাতে না হয়- সে চেষ্টা করছি। আবার ধর্মবিরোধী লেখা যাতে কেউ না লেখেন, সে আহবানও জানাচ্ছি।

সমকামিতা বাংলাদেশের সমাজে নিষিদ্ধ থাকলেও ২০১৪ সাল থেকে বের হওয়া রুপবানের মতো পত্রিকার অনুমোদন বা দুই বছর ধরে প্রকাশনা কেন বন্ধ হয়নি এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, সেই পত্রিকা যখন বের হয়, তখন তারা বলেনি, এ ধরনের লেখা বের হবে। এখন লিখছে, আমরা দেখছি, আমরা বন্ধ করবো।

এ ধরনের কর্মকাণ্ড বা প্রকাশনা যখনই নজরে পড়ছে তখনই তা বন্ধ করা হচ্ছে। পহেলা বৈশাখে সমকামীদের মিছিলের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, পহেলা বৈশাখে পুলিশ সেটা প্রতিহত করে বলে বড় ধরনের কোনো দুর্ঘটনা ঘটেনি। বইমেলাতেও ‘ইসলাম বিতর্ক’ নামে একটা বই বের হওয়ার কথা ছিল, পুলিশ তা বন্ধ করে।

২০১৪ সাল থেকে প্রকাশিত সমকামী অধিকার বিষয়ক ম্যাগাজিন রুপবান প্রথম এই পহেলা বৈশাখে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর নজরে আসে এবং এর পরেই তা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলেও জানান মন্ত্রী।

x

Check Also

আরো আট নারী ও শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ

সাভারের আশুলিয়ায় বন্ধুদের সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে স্থানীয় একটি কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা দুই ...