Home / জেলা সংবাদ / বান্দরবানের  রোয়াংছড়িতে জোড়া খুন

বান্দরবানের  রোয়াংছড়িতে জোড়া খুন

বান্দরবান প্রতিনিধি :

বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলার আলেক্ষ্যং ইউনিয়নের আঙ্গা পাড়ায় জোড়া খুনের ঘটনা ঘটেছে। গত মঙ্গলবার রাতে এ ঘটনা ঘটেছে। হত্যাকান্ডের শিকার উগ্যহ্লা মার্মার স্ত্রী রোয়াংছড়ি থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনার পর ঘাটক পলাতক রয়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানায়, গত মঙ্গলবার রোয়াংছড়িতে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর একটি সন্ত্রাস ও জঙ্গি বিরোধী সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিসহ থোয়াইচিমং মার্মা (৩৫) সভায় উপস্থিত হন। থোয়াইচিমং মার্মা আঙ্গা পাড়ার কার্বারীর (পাড়া প্রধানের) সন্তান। ওই সভায় উগ্যহ্লা মার্মা (৩২) ও আপ্রুমং মার্মা (২৬)অনুপস্থিত ছিলেন। সভা শেষে বাড়ি ফেরার পথে থোয়াইচিমং মার্মা সঙ্গে ওই দুজনের কথা কাটাকাটি হয়। ওই দুজনের ধারণা তাদের নাম সন্ত্রাসী হিসেবে থোয়াইচিমং মার্মা আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে বলে দিয়েছে। এই নিয়ে থোয়াইচিমং মার্মাকে মারধর করারও চেষ্টা করা হয়। পরে উভয়ে নিজ নিজ বাসা ফিরে যায়। রাত দশটার দিকে ওই দুজন আবার থোয়াইচিমং মার্মার বাসায় যায়। এক পর্যায়ে দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করতে চাইলে ওই দুজনকে লাঠি দিয়ে আঘাত করেন। লাঠির গুরুতর আঘাতে ওই দুজনের মৃত্যু ঘটে। ঘটনার পর ঘাটক পালিয়ে যায়। এই ঘটনায় উগ্যহ্লা মার্মার স্ত্রী মেনুচিং মার্মা বাদী হয়ে রোয়াংছড়ি থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

সূত্র জানায়, উগ্যহ্লা মার্মার বাড়ি লামা উপজেলায়। বিবাহ সূত্রে আঙ্গা পাড়ায় বসবাস করছেন। স্বভাবগত সে সব সময় উগ্রতা প্রকাশ করে। অন্যজন আপ্রুমং মার্মার বাড়িও লামা উপজেলায়। সে আঙ্গা পাড়ায় এসে তামাক ক্ষেতের শ্রমিক হিসেবে ওই এলাকায় বসবাস করছে।

আলেক্ষ্যং ইউপি চেয়ারম্যান বিশ^নাথ তঞ্চঙ্গ্যা জানান, আইন শৃঙ্খলা মিটিং এ উগ্যহ্লা মার্মা ও আপ্রুমং মার্মা নাম থোয়াইচিমং মার্মা বলে দিয়েছে তারা ধারণা করেন। ওই ধারণা থেকে ওই দুজন থোয়াইচিমং মার্মাকে এর আগে আরো দুইবার আক্রমণ করার চেষ্টা করে। রাত দশটার দিকে থোয়াইচিমং মার্মার বাসায় গিয়ে দরজা ভেঙ্গে আক্রমণ করতে চাইলে ওই দুজনকে লাঠি দিয়ে আঘাত করলে ঘটনাস্থলে তাদের মৃত্যু হয়।

রোয়াংছড়ি থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: ওমর আলী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, খবর পেয়ে পুলিশ বুধবার ঘটনাস্থল থেকে দুইজনের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। হত্যাকান্ডের শিকার উগ্যহ্লা মার্মার স্ত্রী মেনুচিং মার্মা বাদী হয়ে থোয়াইচিমং মার্মাকে আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করেছে। ঘাটক পলাতক রয়েছেন।

 আরডি/ ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬

x

Check Also

আরো আট নারী ও শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ

সাভারের আশুলিয়ায় বন্ধুদের সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে স্থানীয় একটি কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা দুই ...