বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির জন্য বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কক্সবাজারে ত্রাণ দিতে গিয়েছিলেন বলে মন্তব্য করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

আজ শনিবার দুপুরে চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার হাইলধর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আওয়ামী লীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য আক্তারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণসভায় অংশ নিয়ে এ কথা বলেন মন্ত্রী।

ওবায়দুল কাদের বলেন, খালেদা জিয়া রোহিঙ্গাদের ত্রাণের জন্য ফেনী হয়ে ঢাকা থেকে কক্সবাজার যাননি, তিনি বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করার জন্য গেছেন। আর এই বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির জন্য তাঁর নির্বাচনী এলাকা ফেনীকে বেছে নিয়েছেন। তিনি ১০ হাজার প্যাকেট ত্রাণ নিয়ে গেছেন ঢাকা থেকে সুদূর কক্সবাজার। আর অচল করে দিয়েছেন ঢাকা-কক্সবাজারের গোটা রাস্তা।

রোহিঙ্গাদের জন্য দলের পক্ষ থেকে ত্রাণ নিয়ে আজ কক্সবাজার সফরে যাচ্ছেন ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের এই ত্রাণ বিতরণ নিয়ে কিছু স্থানীয় পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানান ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, বিএনপির দেখাদেখি আওয়ামী লীগ ত্রাণ দিতে যাচ্ছে বিষয়টি ঠিক নয়। কারণ অনেক আগেই বঙ্গবন্ধুর দুই মেয়ে শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ নিয়ে গেছেন।

ফেনীতে খালেদা জিয়ার গাড়িবহরের ওপর হামলা আওয়ামী লীগ করেনি দাবি করে ওবায়দুল কাদের বলেন, এটা বিএনপিই করেছে পরিকল্পিতভাবে। কারণ এই হামলায় খালেদা জিয়া আহত হননি। ইচ্ছা করেই সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালানো হয়েছে যেন খবরটি গণমাধ্যমে ভালোভাবে প্রকাশ পায়।

গত ২৫ আগস্ট থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গার সংখ্যা বাড়তে থাকলে বেশ কয়েকবার কক্সবাজারে ছুটে গেছেন ওবায়দুল কাদের। তবে আজ যাত্রাপথে চট্টগ্রামের সাতকানিয়া ও চন্দনাইশে পথসভা করবেন তিনি।

এ সময় নির্বাচন নিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আগামী নির্বাচনে বিএনপি আসবে, সেটা আমরা জানি। বিএনপি যদি না আসে আজকে দল হিসেবে তাদের যে অস্তিত্ব আছে তা হারাবে। বিএনপির পরিণতি হবে মুসলিম লীগের মতো। সেটা বিএনপিও জানে।’

স্মরণসভায় দলের যগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ, ভূমি প্রতিমন্ত্রী ও আক্তারুজ্জামান বাবুর বড় ছেলে সাইফুজ্জামান চৌধুরী, দলের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমেদসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এসএমএইচ// ৪ঠা নভেম্বর, ২০১৭ ইং ২০শে কার্তিক, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ