Home / জেলা সংবাদ / র‌্যাব-পুলিশের পাশাপাশি বিজিবিও মোতায়েন শোলাকিয়ায়

র‌্যাব-পুলিশের পাশাপাশি বিজিবিও মোতায়েন শোলাকিয়ায়

নিজস্ব প্রতিবেদক :

ঈদ জামাতকে জঙ্গি হামলামুক্ত রাখা চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে। এ জন্য চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থার পাশাপাশি শুধু ঈদগাহে জায়নামাজ ছাড়া কোনো কিছু না নিয়ে যাওয়ার অনুরোধ করা হয়েছে মুসল্লিদের। এমনকি ছাতা না নিয়ে আসারও আহ্বান জানানো হয়।

পাশাপাশি দেশের বৃহত্তম ঈদের জামাত কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানের বাড়তি নিরাপত্তার জন্য সেখানে র্যা ব-পুলিশের পাশাপাশি বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে। যাতে ঈদ-উল-ফিতরের মতো এবার কেউ হামলা করতে না পারে।

৭ জুলাই ঈদ-উল-ফিতরে শোলাকয়িা ঈদগাহের অদূরে তল্লাশি চৌকিতে পুলিশের ওপর হামলা চালায় জঙ্গিরা। ওই ঘটনায় দুই পুলশি সদস্য ও স্থানীয় এক গৃহবধূ নিহত হন। এ সময় পুলিশের গুলিতে এক জঙ্গি নিহত এবং গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আরেক জঙ্গি র্যা বের হাতে আটক হয়।

র্যা পিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানসহ দেশের সব ঈদগাহে মুসল্লিদের শুধু জায়নামাজ নিয়ে ঈদের নামাজ পড়তে আসার অনুরোধ করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘সাম্প্রতিক হামলার বিষয়গুলো বিবেচনা করেই সারাদেশে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। তাই জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে ঈদগাহে নামাজ পড়তে মুসল্লিদের শুধু জায়নামাজ নিয়ে আসার অনুরোধ জানাচ্ছি।’

র্যা বের গণমাধ্যম শাখার প্রধান কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান বলেন, ‘গত ঈদের মতো এ ঈদে জঙ্গি হামলার ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট কোনো গোয়েন্দা তথ্য আমাদের কাছে নেই। তবে যে কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার আশঙ্কা বিবেচনায় রেখে প্রতিটি ঈদগাহ এলাকায় নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে।’

এদিকে কিশোরগঞ্জ জেলা প্রশাসন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দান ও এর আশপাশে র্যা ব-পুলিশের পাশাপাশি তিন প্লাটুন বিজিবি সদস্য মোতায়েন রয়েছে। এ ছাড়া সাদা পোশাকে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরাও রয়েছেন। বসানো হয়েছে সিসিটিভি ক্যামেরাও।

জেলা প্রশাসক মো. আজিমুদ্দিন বিশ্বাস বলেন, ‘গত ঈদে আজিম উদ্দিন হাইস্কুল ঘেঁষে ঈদগাহমুখী যে রাস্তায় জঙ্গি হামলা চালানো হয়, সেই রাস্তাটি এবার বন্ধ রাখা হয়েছে।’

কিশোরগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মো. আনোয়ার হোসেন খান বলেন, ‘ইদগাহ মাঠের তিন দিকের সব প্রবেশপথ বন্ধ রাখা হয়েছে। আর্চওয়ের ভেতর দিয়ে সামনের দুটি গেটে মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে দেহ তল্লাশি করে মুসল্লিদের মাঠে ঢুকতে দেওয়া হয়।’

 আরডি/ ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৬

x

Check Also

আরো আট নারী ও শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ

সাভারের আশুলিয়ায় বন্ধুদের সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে স্থানীয় একটি কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা দুই ...