Home / অর্থ-বাণিজ্য / লিয়াকতের উসকানিতে বাঁশখালীতে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ : তদন্ত রিপোর্ট

লিয়াকতের উসকানিতে বাঁশখালীতে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ : তদন্ত রিপোর্ট

চট্টগ্রাম, ১০ মে (অনলাইনবার্তা): বাঁশখালী উপজেলার গণ্ডামারা ইউনিয়নে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের জন্য ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা লিয়াকত আলীকে দায়ী করে প্রতিবেদন দিয়েছেন জেলা প্রশাসনের গঠিত তদন্ত কমিটি

তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর কারণেই রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়েছিল। কেন্দ্রের ভাল দিকগুলো জনগণকে না জানানোর কারণে এর বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছিল এলাকার জনগণ

গণ্ডামারায় কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্প নিয়ে সংঘর্ষে চারজন নিহতের ঘটনায় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছিল। মে কমিটি জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন আহমদের কাছে প্রতিবেদন দাখিল করে

চট্টগ্রাামের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) মমিনুর রশিদের নেতৃত্বে গঠিত তিন সদস্যের কমিটির দেওয়া পাঁচ পৃষ্ঠার তদন্ত প্রতিবেদনে প্রকল্পটি বাস্তবায়নে বিভ্রান্তি দুর, জনগণ স্থানীয় প্রশাসনকে সম্পৃক্ত করার সুপারিশ করেছে।

প্রতিবেদন পাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন, কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের কুফল সম্পর্কে বিভ্রান্তি ছড়িয়ে এলাকার বাসিন্দাদের উত্তেজিত করেছিল লিয়াকত। প্রশাসনের লোকজনকে এলাকাবাসী যেভাবে হামলা করেছিল তাতে পুলিশের গুলি করা ছাড়া কোন উপায় ছিল না

তদন্ত কমিটি প্রকল্প বাস্তবায়নে এলাকাবাসীকে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের সুফল সম্পর্কে বুঝানোসহ দুই দফা সুপারিশ করেছে জানিয়ে জেলা প্রশাসক বলেন, বিভ্রান্তি দুর, জনগণ স্থানীয় প্রশাসনকে সম্পৃক্ত করার সুপারিশ করেছে কমিটি

তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) মমিনুর রশিদ বাংলানিউজকে বলেন, ঘটনারদিন পরের দিনের সংবাদপত্রের সংবাদ পর্যালোচনা করে সংশ্লিষ্ট ২২ জনের সঙ্গে কথা বলেছি। এছাড়া সংঘর্ষের ঘটনায় আহত, নিহতদের পরিবারের সদস্য এবং ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘটনার সময় উপস্থিত ছিল এমন লোকজনের বক্তব্য নিয়েছি। সবার বক্তব্য পর্যালোচনা করে পাঁচ পৃষ্ঠার প্রতিবেদন করা হয়েছে

সরকারকে প্রতিবেদনের বিষয়ে অবহিত করার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বাঁশখালীতে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে স্থানীয় বিএনপি নেতা লিয়াকত কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়িয়ে স্থানীয় জনগণকে ভুল বোঝায়।এর মধ্য দিয়ে সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করার উদ্দেশ্যে পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করা হয় বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ রয়েছে।

গত এপ্রিল বাঁশখালী উপজেলার গণ্ডামারা ইউনিয়নে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের বিরোধীতা নিয়ে পুলিশের সাথে সংঘর্ষে চারজন নিহত হয়। আহত হয় পুলিশসহ কমপক্ষে ত্রিশজন। চীনের সহায়তায় চট্টগ্রামের ব্যাবসায়িক গ্রুপ এস আলম কেন্দ্রটি নির্মাণ করছে। ইতিমধ্যে কেন্দ্র নির্মাণের জন্য জায়গা ক্রয় করা হয়েছে

x

Check Also

আরো আট নারী ও শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ

সাভারের আশুলিয়ায় বন্ধুদের সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে স্থানীয় একটি কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা দুই ...